সরাসরি বিষয়বস্তুতে যান

সরাসরি দ্বিতীয় মেনুতে যান

সরাসরি বিষয়সূচিতে যান

যিহোবার সাক্ষিরা

বাংলা

আপনার পরিবার সুখী হতে পারে

 খণ্ড ৮

যখন দুঃখজনক ঘটনা ঘটে

যখন দুঃখজনক ঘটনা ঘটে

“তোমরা উল্লাস করিতেছ, যদিও অবকাশমতে এখন অল্প কাল নানাবিধ পরীক্ষায় দুঃখার্ত্ত হইতেছ।” —১ পিতর ১:৬

যদিও আপনি আপনার বিয়েকে এবং পরিবারকে সুখী রাখার জন্য প্রাণপণ প্রচেষ্টা করেন, তবুও এমন অপ্রত্যাশিত ঘটনা ঘটতে পারে, যা আপনার আনন্দ বজায় রাখাকে কঠিন করে তোলে। (উপদেশক ৯:১১) আমরা যখন বিভিন্ন সমস্যার মুখোমুখি হই, তখন ঈশ্বর প্রেমের সঙ্গে আমাদের সাহায্য করেন। আপনি যদি নীচে দেওয়া এই শাস্ত্রীয় নীতিগুলো পালন করেন, তাহলে আপনি এবং আপনার পরিবার এমনকী সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিগুলোর সঙ্গেও মোকাবিলা করতে পারবেন।

 ১ যিহোবার ওপর নির্ভর করুন

বাইবেল যা বলে: “তোমাদের সমস্ত ভাবনার ভার তাঁহার উপরে ফেলিয়া দেও; কেননা তিনি তোমাদের জন্য চিন্তা করেন।” (১ পিতর ৫:৭) সবসময় মনে রাখবেন যে, আপনার পরীক্ষাগুলোর জন্য ঈশ্বরকে দোষ দেওয়া উচিত নয়। (যাকোব ১:১৩) আপনি যদি তাঁর নিকটবর্তী হন, তাহলে তিনি আপনাকে সর্বোত্তম উপায়ে সাহায্য করবেন। (যিশাইয় ৪১:১০) “তাঁহারই সম্মুখে তোমাদের মনের কথা ভাঙ্গিয়া বল।”—গীতসংহিতা ৬২:৮.

এ ছাড়া, প্রতিদিন যখন আপনি বাইবেল পড়বেন এবং অধ্যয়ন করবেন, তখন আপনি সান্ত্বনা পাবেন। এর ফলে আপনি বুঝতে পারবেন যে, কীভাবে যিহোবা “আমাদের সমস্ত ক্লেশের মধ্যে আমাদিগকে সান্ত্বনা করেন।” (২ করিন্থীয় ১:৩, ৪; রোমীয় ১৫:৪) তিনি আপনাকে “সমস্ত চিন্তার অতীত যে ঈশ্বরের শান্তি, তাহা” দেওয়ার প্রতিজ্ঞা করেন।—ফিলিপীয় ৪:৬, ৭, ১৩.

আপনি যা করতে পারেন:

  • শান্ত থাকার এবং স্পষ্টভাবে চিন্তা করার জন্য যিহোবার কাছে সাহায্য চেয়ে প্রার্থনা করুন

  • আপনি কী কী পদক্ষেপ নিতে পারেন, তা নিয়ে চিন্তা করুন এবং সর্বোত্তম উপায়টা বেছে নিন

২ নিজের ও পরিবারের যত্ন নিন

বাইবেল যা বলে: “বুদ্ধিমানের চিত্ত জ্ঞান উপার্জ্জন করে, এবং জ্ঞানবানদের কর্ণ জ্ঞানের সন্ধান করে।” (হিতোপদেশ ১৮:১৫) সকলের বিষয়ে খেয়াল রাখুন। আপনার পরিবারের প্রত্যেক সদস্যের কী প্রয়োজন, তা জানার চেষ্টা করুন। তাদের সঙ্গে কথা বলুন। তাদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনুন।—হিতোপদেশ ২০:৫.

যদি কোনো প্রিয়জন মারা যায়, তাহলে? আপনার অনুভূতি প্রকাশ করতে দ্বিধা করবেন না। মনে রাখবেন, এমনকী ‘যীশুও কাঁদিয়াছিলেন।’ (যোহন ১১:৩৫; উপদেশক ৩:৪) পর্যাপ্ত পরিমাণে বিশ্রাম নেওয়া এবং ঘুমানোও গুরুত্বপূর্ণ। (মার্ক ৬:৩১) এগুলো আপনাকে দুর্দশামূলক পরিস্থিতির সঙ্গে আরও সহজে মোকাবিলা করতে সাহায্য করবে।

আপনি যা করতে পারেন:

  • দুঃখজনক ঘটনা ঘটার আগে থেকেই আপনার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ভাববিনিময় করার অভ্যাস গড়ে তুলুন। যখন সমস্যা দেখা দেবে, তখন তারা আপনার সঙ্গে কথা বলতে স্বস্তি বোধ করবে

  • অন্যদের সঙ্গে কথা বলুন, যারা একই পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছে

 ৩ আপনার যে-সাহায্যের প্রয়োজন, তা গ্রহণ করুন

বাইবেল যা বলে: “বন্ধু সর্ব্বসময়ে প্রেম করে, ভ্রাতা দুর্দ্দশার জন্য জন্মে।” (হিতোপদেশ ১৭:১৭) আপনার বন্ধুরা আপনাকে সাহায্য করতে চায় কিন্তু তারা হয়তো জানে না যে, কী করতে হবে। তাই, আপনার যা প্রয়োজন, তা তাদেরকে বলতে দ্বিধা করবেন না। (হিতোপদেশ ১২:২৫) এ ছাড়া, যারা বাইবেল সম্বন্ধে জানে, তাদের কাছ থেকে আধ্যাত্মিক সাহায্য লাভের চেষ্টা করুন। বাইবেল থেকে তারা আপনাকে যে-নির্দেশনা দিতে পারে, তা আপনাকে সাহায্য করবে।—যাকোব ৫:১৪.

আপনি যখন নিয়মিতভাবে সেই ব্যক্তিদের সঙ্গে মেলামেশা করেন, যাদের প্রকৃতই ঈশ্বরের ওপর বিশ্বাস আছে এবং যারা তাঁর প্রতিজ্ঞাগুলোর ওপর নির্ভর করে, তখন আপনি প্রয়োজনীয় সাহায্য লাভ করবেন। এ ছাড়া, যাদের উৎসাহের প্রয়োজন, তাদেরকে সাহায্য করার মাধ্যমেও আপনি প্রচুর সান্ত্বনা পাবেন। তাদের কাছে যিহোবা এবং তাঁর প্রতিজ্ঞাগুলোর ওপর আপনার বিশ্বাস সম্বন্ধে কথা বলুন। প্রয়োজন রয়েছে এমন ব্যক্তিদের সাহায্য করায় ব্যস্ত থাকুন এবং সেই ব্যক্তিদের কাছ থেকে নিজেকে পৃথক করবেন না, যারা আপনাকে ভালোবাসে এবং আপনার জন্য চিন্তা করে।—হিতোপদেশ ১৮:১; ১ করিন্থীয় ১৫:৫৮.

আপনি যা করতে পারেন:

  • কোনো ঘনিষ্ঠ বন্ধুর সঙ্গে কথা বলুন এবং তার সাহায্য গ্রহণ করুন

  • আপনার কী প্রয়োজন, তা স্পষ্ট এবং খোলাখুলিভাবে বলুন

আরও জানুন

ঈশ্বরের কাছ থেকে সুসমাচার!

কেন ঈশ্বর মন্দতা ও দুঃখকষ্ট থাকতে দিয়েছেন?

কীভাবে মন্দতা শুরু হয়েছিল আর কেন ঈশ্বর এখনও পর্যন্ত তা থাকতে দিয়েছেন? দুঃখকষ্ট কি কখনো শেষ হবে?

সজাগ হোন!

যখন মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে—কোনো প্রিয়জনকে হারানো

১৬ বছর আগে এক গাড়ি দুর্ঘটনায় রোনাল্ডো তার পরিবারের পাঁচ জন সদস্যকে হারান। যদিও এটা তার জীবনে শূন্যতার সৃষ্টি করেছে, তা সত্ত্বেও তিনি মানসিক শান্তি খুঁজে পেয়েছেন।