সরাসরি বিষয়বস্তুতে যান

সরাসরি দ্বিতীয় মেনুতে যান

সরাসরি বিষয়সূচিতে যান

যিহোবার সাক্ষিরা

বাংলা

আপনার পরিবার সুখী হতে পারে

 খণ্ড ৯

পরিবারগতভাবে যিহোবাকে উপাসনা করুন

পরিবারগতভাবে যিহোবাকে উপাসনা করুন

“যিনি স্বর্গ, পৃথিবী . . . উৎপন্ন করিয়াছেন, তাঁহার ভজনা কর।”—প্রকাশিত বাক্য ১৪:৭

এই ব্রোশারে যেমন আপনি শিখেছেন, বাইবেলে এমন অনেক নীতি রয়েছে, যেগুলো আপনাকে এবং আপনার পরিবারকে সাহায্য করবে। যিহোবা চান, যেন আপনি সুখী হন। তিনি প্রতিজ্ঞা করেন যে, আপনি যদি তাঁর ভজনা বা উপাসনাকে প্রথমে রাখেন, তাহলে ‘ঐ সকল দ্রব্যও আপনাকে দেওয়া হইবে।’ (মথি ৬:৩৩) তিনি আসলেই চান যেন আপনি তাঁর বন্ধু হন। ঈশ্বরের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে তোলার জন্য প্রতিটা সুযোগকে কাজে লাগান। একজন ব্যক্তির জন্য এটা হল এক মহৎ সুযোগ।—মথি ২২:৩৭, ৩৮.

 ১ যিহোবার সঙ্গে আপনার সম্পর্ককে শক্তিশালী করুন

বাইবেল যা বলে: “আমিই . . . তোমাদের পিতা হইব, ও তোমরা আমার পুত্ত্র কন্যা হইবে, ইহা . . . প্রভু কহেন।” (২ করিন্থীয় ৬:১৭, ১৮) ঈশ্বর চান যেন আপনি তাঁর ঘনিষ্ঠ বন্ধু হন। এর একটা উপায় হল প্রার্থনা। যিহোবা আপনাকে ‘অবিরত প্রার্থনা করিতে’ আমন্ত্রণ জানান। (১ থিষলনীকীয় ৫:১৭) তিনি আপনার মনের চিন্তা ও উদ্‌বেগ শোনার জন্য আগ্রহী। (ফিলিপীয় ৪:৬) আপনি যখন আপনার পরিবারের সঙ্গে প্রার্থনা করবেন, তখন তারা দেখতে পাবে যে, ঈশ্বর আপনার কাছে কতটা বাস্তব।

ঈশ্বরের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি, আপনাকে তাঁর কথা শুনতেও হবে। তাঁর বাক্য এবং বাইবেলভিত্তিক প্রকাশনাদি অধ্যয়ন করার মাধ্যমে আপনি তাঁর কথা শুনতে পারেন। (গীতসংহিতা ১:১, ২) আপনি যা শেখেন, তা নিয়ে ধ্যান করুন। (গীতসংহিতা ৭৭:১১, ১২) ঈশ্বরের কথা শোনার জন্য আপনাকে নিয়মিতভাবে খ্রিস্টীয় সভাগুলোতেও যোগ দিতে হবে।—গীতসংহিতা ১২২:১-৪.

এ ছাড়া, তাঁর সঙ্গে আপনার সম্পর্ককে শক্তিশালী করার আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ উপায় হল, অন্যদের কাছে যিহোবা সম্বন্ধে বলা। আপনি যত বেশি অন্যদেরকে যিহোবা সম্বন্ধে বলবেন, তত বেশি আপনি তাঁর নিকটবর্তী বোধ করবেন।—মথি ২৮:১৯, ২০.

আপনি যা করতে পারেন:

  • বাইবেল পাঠ এবং প্রার্থনা করার জন্য প্রতিদিন সময় আলাদা করে রাখুন

  • একটা পরিবার হিসেবে আধ্যাত্মিক বিষয়গুলোকে আমোদপ্রমোদ এবং আরামআয়েশের আগে রাখুন

২ আপনার পারিবারিক উপাসনা উপভোগ করুন

বাইবেল যা বলে: “ঈশ্বরের নিকটবর্ত্তী হও, তাহাতে তিনিও তোমাদের নিকটবর্ত্তী হইবেন।” (যাকোব ৪:৮) পারিবারিক উপাসনার কার্যক্রমের তালিকা করুন এবং নিয়মিতভাবে তা অনুসরণ করুন। (আদিপুস্তক ১৮:১৯) কিন্তু, আরও কিছু করতে হবে। ঈশ্বর যেন আপনাদের রোজকার জীবনের অংশ হয়ে ওঠে। “গৃহে বসিবার কিম্বা পথে চলিবার সময়ে এবং শয়ন কিম্বা গাত্রোত্থান কালে” ঈশ্বর সম্বন্ধে কথা বলার মাধ্যমে তাঁর সঙ্গে আপনার পরিবারের সম্পর্ককে শক্তিশালী করুন। (দ্বিতীয় বিবরণ ৬:৬, ৭) যিহোশূয়ের মতো হওয়ার লক্ষ্য গড়ে তুলুন, যিনি বলেছিলেন: “আমি ও আমার পরিজন আমরা সদাপ্রভুর সেবা করিব।”—যিহোশূয়ের পুস্তক ২৪:১৫.

আপনি যা করতে পারেন:

  • নিয়মিত ও সুসংগঠিত প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের ব্যবস্থা করুন, যেখানে আপনার পরিবারের প্রত্যেক সদস্যের প্রয়োজনগুলো নিয়ে বিবেচনা করা হবে