সরাসরি বিষয়বস্তুতে যান

সরাসরি দ্বিতীয় মেনুতে যান

সরাসরি বিষয়সূচিতে যান

যিহোবার সাক্ষিরা

বাংলা

প্রহরীদুর্গ  |  অক্টোবর ২০১৫

বাইবেলের প্রশ্নের উত্তর

বাইবেলের প্রশ্নের উত্তর

এই জীবনই কি সব কিছু?

আপনার কি কখনো কখনো এমনটা মনে হয়, জীবন খুবই সংক্ষিপ্ত?

আপনি কি কখনো ভেবে দেখেছেন, জীবন বলতে শুধু খেলাধূলা, কাজ, বিয়ে, পরিবার গঠন করা এবং বৃদ্ধ হওয়ার চেয়ে আরও বেশি কিছুকে বোঝায় কি না? (ইয়োব ১৪:১, ২) বাইবেল দেখায়, এমনকী অতীব জ্ঞানী ব্যক্তিরাও এই সম্বন্ধে চিন্তা করেছেন।—পড়ুন, উপদেশক ২:১১.

জীবনের কি কোনো অর্থ রয়েছে? প্রথমত, আমাদের জানতে হবে, কীভাবে জীবন শুরু হয়েছিল। আমাদের মস্তিষ্ক ও দেহের অপূর্ব গঠন বিবেচনা করার পর, অনেকে এই উপসংহারে পৌঁছেছে, সমস্তকিছুর পিছনে একজন বিজ্ঞ সৃষ্টিকর্তা রয়েছেন। (পড়ুন, গীতসংহিতা ১৩৯:১৪.) যদি তা-ই হয়, তা হলে আমাদের সৃষ্টি করার পিছনে নিশ্চয়ই তাঁর কোনো কারণ রয়েছে। সেই কারণটা জানা আমাদের জীবনকে আরও অর্থপূর্ণ করে তুলতে পারে।

কেন মানুষকে সৃষ্টি করা হয়েছিল?

ঈশ্বর প্রথম মানবদম্পতিকে আশীর্বাদ করেছিলেন এবং তাদের এক রোমাঞ্চকর দায়িত্ব দিয়েছিলেন। ঈশ্বরের উদ্দেশ্য ছিল তারা যেন পৃথিবী পরিপূর্ণ করে, এটাকে পরমদেশে পরিণত করে এবং চিরকাল বেঁচে থাকে।—পড়ুন, আদিপুস্তক ১:২৮, ৩১.

মানুষ যখন ঈশ্বরের শাসনের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছিল, তখন তাঁর উদ্দেশ্য সাময়িকভাবে ব্যাহত হয়েছিল। কিন্তু, ঈশ্বর আমাদের প্রত্যাখ্যান করেননি আর পৃথিবী ও আমাদের জন্য তাঁর যে-উদ্দেশ্য ছিল, তা পরিবর্তন করেননি। বাইবেল আমাদের এই নিশ্চয়তা দেয়, বিশ্বস্ত ব্যক্তিদের রক্ষা করার জন্য ঈশ্বর কাজ করে চলেছেন এবং পৃথিবীর জন্য তাঁর যে-উদ্দেশ্য ছিল, তা পূর্ণ হবে। তাই ঈশ্বর চান, তিনি যে-উদ্দেশ্য নিয়ে জীবন সৃষ্টি করেছেন, তা যেন আমরা উপভোগ করি! (পড়ুন, গীতসংহিতা ৩৭:২৯.) কীভাবে আপনি ব্যক্তিগতভাবে ঈশ্বরের উদ্দেশ্য থেকে উপকার লাভ করতে পারেন, তা বাইবেল থেকে জানুন। (w15-E 08/01)