সরাসরি বিষয়বস্তুতে যান

সরাসরি দ্বিতীয় মেনুতে যান

সরাসরি বিষয়সূচিতে যান

যিহোবার সাক্ষিরা

বাংলা

প্রহরীদুর্গ  |  জানুয়ারি ২০১৫

 প্রচ্ছদ বিষয় | আপনি সৃষ্টিকর্তার নিকটবর্তী হতে পারেন

ঈশ্বর যা চান, আপনি কি তা করেন?

ঈশ্বর যা চান, আপনি কি তা করেন?

“আপনি শুধু বলুন আপনার কী লাগবে, বাকিটা আমি দেখছি।” আপনি হয়তো সম্পূর্ণ অচেনা অথবা কেবল সামান্য পরিচিত কোনো ব্যক্তিকে এই কথাগুলো বলতে দ্বিধা করবেন। কিন্তু, কোনো প্রিয় বন্ধুকে এই কথাগুলো বলতে আপনার হয়তো কোনো সমস্যাই হবে না। ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা সাধারণত একে অন্যের কাছ থেকে যা আশা করে, তা করতে পেরে খুশি হয়।

বাইবেল দেখায়, যিহোবা নিয়মিতভাবে সেই বিষয়গুলো করেন, যেগুলো তাঁর উপাসকদের জন্য আনন্দ নিয়ে আসবে। উদাহরণ স্বরূপ, ঈশ্বরের সঙ্গে রাজা দায়ূদের এক ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল আর তিনি বলেছিলেন: “সদাপ্রভু আমার ঈশ্বর, তুমিই বাহুল্যরূপে সাধন করিয়াছ আমাদের পক্ষে তোমার আশ্চর্য্য কার্য্য সকল ও তোমার সঙ্কল্প সকল; . . . সে সকল গণনা করা যায় না।” (গীতসংহিতা ৪০:৫) এর চেয়ে বড়ো কথা হল, যিহোবা এমনকী সেই ব্যক্তিদের জন্যও কাজ করেন, যারা এখনও তাঁকে জানে না। তিনি ‘ভক্ষ্যে ও আনন্দে তাহাদের হৃদয় পরিতৃপ্ত করেন।’—প্রেরিত ১৪:১৭.

যাদেরকে আমরা ভালোবাসি এবং সম্মান করি, তাদের জন্য আমরা আনন্দের সঙ্গে কাজ করি

যে-বিষয়গুলো অন্যদের জন্য আনন্দ নিয়ে আসে, সেগুলো করতে পেরে যেহেতু যিহোবা খুশি হন, তাই এটা যুক্তিযুক্ত যে, যারা ঈশ্বরের বন্ধু হতে চায়, তাদেরকে এমন বিষয়গুলো করতে হবে, যেগুলো তাঁর “চিত্তকে আনন্দিত” করে। (হিতোপদেশ ২৭:১১) কিন্তু, ঈশ্বরকে খুশি করার জন্য আপনি নির্দিষ্টভাবে কোন বিষয়গুলো করতে পারেন? বাইবেল উত্তর দেয়: “উপকার ও সহভাগিতার কার্য্য ভুলিও না, কেননা সেই প্রকার যজ্ঞে ঈশ্বর প্রীত হন।” (ইব্রীয় ১৩:১৬) এর অর্থ কি এই যে, কেবল উপকার ও সহভাগিতার কাজ করলেই যিহোবা খুশি হবেন?

বাইবেল বলে, “বিনা বিশ্বাসে প্রীতির পাত্র হওয়া কাহারও সাধ্য নয়।” (ইব্রীয় ১১:৬) উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, ‘অব্রাহাম ঈশ্বরে বিশ্বাস করিবার’ পরই ‘তিনি “ঈশ্বরের বন্ধু” এই নাম পাইয়াছিলেন।’ (যাকোব ২:২৩) যিশু খ্রিস্টও এই বিষয়টার ওপর জোর দিয়েছিলেন, আমরা যদি ঈশ্বরের আশীর্বাদ লাভ করতে চাই, তাহলে আমাদের ‘ঈশ্বরে বিশ্বাস করিতে’ হবে। (যোহন ১৪:১) তাই, যে-ব্যক্তিদেরকে যিহোবা তাঁর নিকটে আকৃষ্ট করেন, তাদের মধ্যে তিনি যে-বিশ্বাস দেখতে চান, সেটা আপনি কীভাবে অর্জন করতে পারেন? প্রথমত, আপনি নিয়মিতভাবে ঈশ্বরের বাক্য বাইবেল অধ্যয়ন করা শুরু করতে পারেন। তা করার মাধ্যমে আপনি ‘তাঁহার ইচ্ছার তত্ত্বজ্ঞান’ বা সঠিক জ্ঞান লাভ করতে পারবেন আর এভাবে জানতে পারবেন, কীভাবে “সর্ব্বতোভাবে” তাঁর “প্রীতিজনক আচরণ” করা যায়। এরপর, আপনি যখন আরও বেশি করে যিহোবা সম্বন্ধীয় সঠিক জ্ঞান অর্জন করবেন এবং তাঁর ধার্মিক চাহিদাগুলো জেনে সেগুলো কাজে লাগাবেন, তখন তাঁর প্রতি আপনার বিশ্বাস আরও দৃঢ় হবে এবং তিনি আপনার আরও নিকটবর্তী হবেন।—কলসীয় ১:৯, ১০. (w১৪-E ১২/০১)