সরাসরি বিষয়বস্তুতে যান

সরাসরি দ্বিতীয় মেনুতে যান

সরাসরি বিষয়সূচিতে যান

যিহোবার সাক্ষিরা

বাংলা

প্রহরীদুর্গ  |  এপ্রিল ২০১৪

 প্রচ্ছদ বিষয় | মৃত্যুতে কি সমস্ত কিছুই শেষ হয়ে যায়?

মৃত্যুর হুল

মৃত্যুর হুল

মৃত্যু—এই শব্দটা অনেকের কাছে অস্বস্তিকর। অনেকেই এটা নিয়ে কথা বলতে চায় না। কিন্তু আজ হোক বা কাল হোক, আমাদেরকে মৃত্যুর মুখোমুখি হতেই হবে। আর মৃত্যুর হুল হল ধারালো ও যন্ত্রণাদায়ক।

বাবা অথবা মা, বিবাহ সাথি কিংবা সন্তান হারানোর যন্ত্রণা সহ্য করার জন্য কোনো কিছুই আমাদেরকে পুরোপুরিভাবে প্রস্তুত করতে পারে না। হঠাৎ করে অথবা অনেক দিন ধরে একের-পর-এক মর্মান্তিক ঘটনা ঘটতে পারে। যা-ই হোক না কেন, মৃত্যুতে কাউকে হারানোর যন্ত্রণা থেকে রেহাই পাওয়া যেতে পারে না আর এর পরিণতি মারাত্মক হতে পারে।

অ্যান্টোনিও, যিনি তার বাবাকে পথ দুর্ঘটনায় হারিয়েছেন, তিনি ব্যাখ্যা করেন: “এটা এমন যেন কেউ আপনার ঘর তালাবন্ধ করে চাবিগুলো নিয়ে চলে গিয়েছে। এমনকী এক মুহূর্তের জন্যেও আপনি ঘরে ঢুকতে পারছেন না। কেবলমাত্র স্মৃতিগুলোই আপনার কাছে থেকে যায়। এটা হল এমন এক বাস্তব বিষয়, যা আপনার কাছে একেবারে নতুন। আপনি হয়তো মনে করতে পারেন যে, এটা অন্যায় আর তাই আপনি এটাকে অস্বীকার করার চেষ্টা করেন কিন্তু এক্ষেত্রে আপনার কিছুই করার নেই।”

একইভাবে, ডরথি যখন ৪৭ বছর বয়সে বিধবা হয়েছিলেন, তখন তিনি কিছু উত্তর খোঁজার চেষ্টা করছিলেন। সান্ডে-স্কুলের একজন শিক্ষিকা হিসেবে তিনি কখনো মনে করতেন না যে, মৃত্যুতে সমস্ত কিছু শেষ হয়ে যায়। কিন্তু, এই বিষয়ে তার কাছে কোনো স্পষ্ট উত্তর ছিল না। তিনি তার গির্জার যাজককে জিজ্ঞেস করেছিলেন, “আমরা মারা গেলে আমাদের কী হয়?” সেই যাজক উত্তরে বলেছিলেন, ‘আসলে কেউ-ই তা জানে না। কী হবে, তা দেখার জন্য আমাদের শুধু অপেক্ষা করতে হবে।’

আমাদেরকে কি শুধু ‘দেখার জন্য অপেক্ষা করার’ শাস্তি দেওয়া হয়েছে? মৃত্যুতে সমস্ত কিছুই শেষ হয়ে যায় কি না, সেই বিষয়ে নিশ্চিতভাবে জানার জন্য আমাদের কি কোনো উপায় রয়েছে? (w14-E 01/01)