সরাসরি বিষয়বস্তুতে যান

সরাসরি দ্বিতীয় মেনুতে যান

সরাসরি বিষয়সূচিতে যান

যিহোবার সাক্ষিরা

বাংলা

প্রহরীদুর্গ (অধ্যয়ন সংস্করণ)  |  ফেব্রুয়ারি ২০১৫

প্রচার কাজের প্রতি আপনার উদ্যোগ বজায় রাখুন

প্রচার কাজের প্রতি আপনার উদ্যোগ বজায় রাখুন

বর্তমানে সুসমাচার প্রচার কাজ হচ্ছে পৃথিবীতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ। যিহোবার একজন দাস হিসেবে, নিশ্চিতভাবেই আপনি শিষ্য তৈরির কাজে অংশ নিতে পারাকে এক সম্মান বলে মনে করেন। কিন্তু, নিঃসন্দেহে আপনি এই বিষয়ে একমত হবেন, অগ্রগামীরা এবং প্রকাশকরা মাঝে মাঝে প্রচার কাজের প্রতি তাদের উদ্যোগ বজায় রাখাকে কঠিন বলে মনে করে।

কী আপনাকে প্রচার কাজের প্রতি আপনার উদ্যোগ বজায় রাখার জন্য সাহায্য করতে পারে?

কোনো কোনো প্রকাশকের পক্ষে ঘরে ঘরে প্রচারের সময় এমন ব্যক্তিদের খুঁজে পাওয়া খুবই কঠিন, যাদের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাওয়া যায়। সত্যি বলতে কী, স্থানীয় লোকেদের মধ্যে বেশিরভাগ ব্যক্তিকেই হয়তো ঘরে পাওয়া যায় না। আবার গৃহকর্তাদের সঙ্গে যখন যোগাযোগ করা হয়, তখন রাজ্যের বার্তার প্রতি তারা হয়তো উদাসীন অথবা এমনকী বিরূপ মনোভাব দেখায়। অন্যান্য প্রকাশকদের যদিও প্রচার করার জন্য বিরাট ও ফলপ্রসূ এলাকা রয়েছে কিন্তু তারা এই ভেবে ভয় পায়, তারা হয়তো কখনো প্রচার কাজ শেষ করতে পারবে না। আর মণ্ডলীর কোনো কোনো সদস্য বছরের পর বছর ধরে, এমনকী তাদের প্রত্যাশিত সময়ের চেয়ে বেশি সময় ধরে প্রচার করছে এবং নিরুৎসাহিত হয়ে পড়েছে।

এতে কি আমাদের অবাক হওয়া উচিত যে, যিহোবার সমস্ত লোক এমন বাধাগুলোর মুখোমুখি হয়, যেগুলো প্রচার কাজের প্রতি তাদের উদ্যোগকে হ্রাস করে দিতে পারে? না। সত্যি বলতে কী, আমাদের কারো কি এইরকমটা আশা করা ঠিক যে, ‘পাপাত্মা’ বা দুষ্ট ব্যক্তি শয়তান দিয়াবলের দ্বারা শাসিত এক জগতে ঈশ্বরের জীবনরক্ষাকারী সত্যের বার্তা ঘোষণা করা আমাদের জন্য সহজ হবে?—১ যোহন ৫:১৯.

সুসমাচার প্রচার করার সময় ব্যক্তিগতভাবে আপনি যে-বাধাগুলোর মুখোমুখিই হোন না কেন, নিশ্চিত থাকুন যিহোবা আপনাকে সেগুলো কাটিয়ে ওঠার জন্য সাহায্য করতে পারেন। কিন্তু, প্রচার কাজের প্রতি আপনার উদ্যোগ বৃদ্ধি করার জন্য আপনি কী করতে পারেন? আসুন আমরা কিছু পরামর্শ বিবেচনা করি।

তুলনামূলকভাবে কম অভিজ্ঞতা রয়েছে এমন ব্যক্তিদের সাহায্য করুন

প্রতি বছর হাজার হাজার ব্যক্তি যিহোবার নতুন সাক্ষি হিসেবে বাপ্তিস্ম নেয়। আপনি যদি সম্প্রতি আপনার উৎসর্গীকরণের প্রতীক  হিসেবে জলে বাপ্তিস্ম নিয়ে থাকেন, তাহলে নিঃসন্দেহে আপনি সেই ব্যক্তিদের অভিজ্ঞতা থেকে উপকৃত হতে পেরে কৃতজ্ঞ হবেন, যারা আপনার চেয়ে বেশি সময় ধরে প্রচার করছে। আর আপনি যদি অনেক বছর ধরে প্রচার কাজ করে থাকেন, তাহলে নতুন ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণ দেওয়া কি আপনার জন্য উপযুক্ত ও পরিতৃপ্তিদায়ক হবে না?

যিশু জানতেন, কার্যকারী প্রচারক হওয়ার জন্য তাঁর শিষ্যদের নির্দেশনা প্রয়োজন আর তিনি দেখিয়েছিলেন, কীভাবে কাজ করা উচিত। (লূক ৮:১) বর্তমানেও, কার্যকারী প্রচারক হওয়ার জন্য অন্যদের প্রশিক্ষণ দেওয়া প্রয়োজন।

আমাদের এইরকমটা ধরে নেওয়া উচিত নয়, একজন নতুন প্রকাশক কেবল প্রচার কাজে অংশ নেওয়ার মাধ্যমেই শিক্ষাদানের দক্ষতা গড়ে তুলবেন। একজন সদয় ও প্রেমময় প্রশিক্ষকের কাছ থেকে ব্যক্তিগতভাবে তার নির্দেশনার প্রয়োজন। এইরকম প্রশিক্ষণের অন্তর্ভুক্ত হল, তুলনামূলকভাবে কম অভিজ্ঞ প্রকাশকদের এই বিষয়গুলো দেখানো, কীভাবে (১) উপস্থাপনা তৈরি করতে ও মহড়া দিতে হয়, (২) একজন গৃহকর্তা অথবা পথচারীকে আলোচনায় জড়িত করা যায়, (৩) সাহিত্য অর্পণ করতে হয়, (৪) আগ্রহ ধরে রাখা যায় এবং (৫) বাইবেল অধ্যয়ন শুরু করতে হয়। একজন ছাত্র বা ছাত্রী তখনই উত্তম ফল লাভ করতে পারবেন, যদি তিনি তার প্রশিক্ষকের প্রচার করার পদ্ধতি ভালোভাবে লক্ষ করেন এবং সেগুলো অনুকরণ করেন। (লূক ৬:৪০) কোনো সন্দেহ নেই, একজন নতুন প্রকাশক যদি এমন কারো সঙ্গে কাজ করতে পারেন, যিনি মনোযোগ দিয়ে শোনেন এবং প্রয়োজনের সময় সাহায্য করেন, তাহলে তিনি খুবই কৃতজ্ঞ হবেন। এ ছাড়া, তুলনামূলকভাবে কম অভিজ্ঞ একজন প্রকাশককে যদি প্রশংসা করা হয় এবং কার্যকরী পরামর্শ দেওয়া হয়, তাহলেও তিনি উপকার লাভ করবেন।—উপ. ৪:৯, ১০.

আপনার প্রচারের সঙ্গীর সঙ্গে কথা বলুন

যদিও গৃহকর্তার সঙ্গে আলোচনা করার জন্য আপনি যথাসাধ্য চেষ্টা করেন কিন্তু কোনো কোনো দিন প্রচার কাজে যার সঙ্গে আপনার সবচেয়ে ভালো আলোচনা হয়, তিনি হলেন আপনার প্রচারের সঙ্গী। মনে রাখবেন, প্রচার করার জন্য যিশু তাঁর শিষ্যদেরকে “দুই দুই জন করিয়া” পাঠিয়েছিলেন। (লূক ১০:১) একসঙ্গে প্রচার করার সময় তারা পরস্পরকে উদ্দীপিত ও অনুপ্রাণিত করতে পারতেন। তাই, প্রচারের সময় একজন সহবিশ্বাসীর সঙ্গে সময় কাটানো, ‘উভয় পক্ষের আশ্বাস’ বা উৎসাহ প্রদানের জন্য এক উত্তম সুযোগ প্রদান করে।—রোমীয় ১:১২.

আপনি কোন কোন বিষয় নিয়ে কথা বলতে পারেন? আপনাদের দু-জনের মধ্যে কারো কি সম্প্রতি কোনো উৎসাহজনক অভিজ্ঞতা হয়েছে? ব্যক্তিগত অথবা পারিবারিক অধ্যয়নের সময় আপনি কি কোনো আগ্রহজনক বিষয় খুঁজে পেয়েছেন? সভাতে কিছু শুনে আপনি কি উৎসাহিত হয়েছেন? মাঝে মাঝে আপনি যে-প্রকাশকের সঙ্গে কাজ করেন, তিনি হয়তো আপনার নিয়মিত প্রচারের সঙ্গী নন। আপনি কি জানেন, তিনি কীভাবে সত্যে এসেছেন? কী তাকে দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করতে পরিচালিত করেছিল যে, এটাই যিহোবার সংগঠন? কোন কোন বিশেষ সুযোগ অথবা অভিজ্ঞতা তার রয়েছে? চাইলে আপনিও আপনার কিছু অভিজ্ঞতা তাকে বলতে পারেন। প্রচারের প্রতি যে-সাড়াই পাওয়া যাক না কেন, প্রচারের সময় কারো সঙ্গে কাজ করা ‘এক জন অন্যকে গাঁথিয়া তুলিবার’ এক চমৎকার সুযোগ প্রদান করে।—১ থিষল. ৫:১১.

 আপনার অধ্যয়নের উত্তম অভ্যাস বজায় রাখুন

প্রচার কাজের প্রতি উদ্যোগ বজায় রাখার জন্য অধ্যয়নের উত্তম অভ্যাস গড়ে তোলার প্রচেষ্টা করা এবং তা বজায় রাখা আবশ্যক। “বিশ্বস্ত ও বুদ্ধিমান্‌ দাস” প্রচুর বিষয়বস্তুর ওপর তথ্য প্রকাশ করে থাকেন। (মথি ২৪:৪৫) তাই, আধ্যাত্মিক খাবার গ্রহণ করার জন্য আপনি যে-বিষয়বস্তু নিয়ে অধ্যয়ন করতে পারেন, সেটার পরিমাণ ব্যাপক। আসুন আমরা ব্যক্তিগত অধ্যয়নের জন্য এক উত্তম বিষয়ের উদাহরণ বিবেচনা করি: কেন ঈশ্বরের রাজ্য সম্বন্ধে প্রচার করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কাজ? এই প্রবন্ধের সঙ্গে দেওয়া বাক্সের মধ্যে কিছু কারণ তুলে ধরা হয়েছে।

বাক্সের মধ্যে দেওয়া কারণগুলো বিবেচনা করার মাধ্যমে আপনি উদ্যোগের সঙ্গে প্রচার করার জন্য অনুপ্রাণিত হতে পারেন। অন্যান্য আর কোন কারণ যুক্ত করা যেতে পারে, তা বের করার জন্য ব্যক্তিগত অধ্যয়ন প্রকল্প শুরু করুন না কেন? এরপর সেই কারণ ও এর সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত শাস্ত্রপদগুলো নিয়ে ধ্যান করুন। তা করলে নিঃসন্দেহে প্রচার কাজের প্রতি আপনার উদ্যোগ বৃদ্ধি পাবে।

পরামর্শ মেনে নিতে ইচ্ছুক হোন

যিহোবার সংগঠন নিয়মিতভাবে এমন পরামর্শ দিয়ে থাকে, যেগুলো আমাদের প্রচার কাজে উন্নতি করতে সাহায্য করে। উদাহরণ স্বরূপ, ঘরে ঘরে প্রচার করা ছাড়াও আমরা হয়তো চিঠি লিখতে, টেলিফোনে সাক্ষ্য দিতে, রাস্তায় বা অন্যান্য জনসাধারণ্যের এলাকায় প্রচার করতে এবং রীতিবহির্ভূতভাবে ও ব্যাবসায়িক এলাকায় লোকেদের কাছে সুসমাচার প্রচার করতে পারি। এ ছাড়া, আমরা হয়তো আমাদের কাজকর্মকে এমনভাবে রদবদল করতে পারি, যাতে আমরা সেই এলাকাগুলোতে সাক্ষ্য দিতে পারি, যেখানে খুব কম কাজ করা হয়ে থাকে।

আপনি কি এই পরামর্শগুলো মেনে নিতে ইচ্ছুক? আপনি কি এর মধ্যে কিছু পরামর্শ কাজে লাগানোর চেষ্টা করেছেন? এগুলো কাজে লাগানোর মাধ্যমে যে-ফল পাওয়া গিয়েছে, তা দেখে অনেকে অত্যন্ত আনন্দিত হয়েছে। তিনটে উদাহরণ বিবেচনা করুন।

প্রথম উদাহরণ হল, কীভাবে বাইবেল অধ্যয়ন শুরু করা যায়, সেই বিষয়ে রাজ্যের পরিচর্যা-য় উল্লেখিত একটা প্রবন্ধে বলা বিষয়বস্তু কাজে লাগিয়ে উত্তম ফল লাভ করা। এপ্রিল নামে একজন বোন এই  পরামর্শ অনুযায়ী তার তিন জন সহকর্মীকে অধ্যয়নের প্রস্তাব দিতে অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন। তারা তিন জনই যখন সেই প্রস্তাব গ্রহণ করেছিলেন এবং মণ্ডলীর সভাগুলোতে উপস্থিত হতে শুরু করেছিলেন, তখন সেই বোন অবাক হয়ে গিয়েছিলেন এবং খুবই আনন্দিত হয়েছিলেন।

দ্বিতীয় উদাহরণ হল, আমাদের পত্রিকাগুলো অর্পণ করার পরামর্শ কাজে লাগিয়ে উত্তম ফল লাভ করা। আমাদের এমন লোকেদের খুঁজে বের করার জন্য উৎসাহিত করা হয়েছে, যারা হয়তো আমাদের পত্রিকার নির্দিষ্ট প্রবন্ধগুলোর প্রতি সাড়া দেন। যুক্তরাষ্ট্রের একজন সীমা অধ্যক্ষ রিপোর্ট করেন, তিনি এক নির্দিষ্ট এলাকার গাড়ির টায়ারের সমস্ত দোকানের ম্যানেজারদের এমন একটা সচেতন থাক! (ইংরেজি) পত্রিকা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন, যেটার মধ্যে টায়ার সম্বন্ধে প্রবন্ধ রয়েছে। তিনি এবং তার স্ত্রী তাদের সীমায় ১০০-রও বেশি ডাক্তারের অফিসে “আপনার ডাক্তারের অনুভূতি ও অবস্থা বোঝা” নামক এক ধারাবাহিক প্রবন্ধও দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন: “যিহোবার সাক্ষি এবং তাদের সাহিত্যাদির সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য আমাদের এই সাক্ষাৎ অনেক কার্যকরী হয়েছিল। এই স্থানগুলোতে বিভিন্ন ব্যক্তির সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণভাবে কথাবার্তা বলার মাধ্যমে আমরা তাদের সঙ্গে আরও বেশি করে সাক্ষাৎ করতে সমর্থ হয়েছিলাম।”

তৃতীয় উদাহরণ হল, টেলিফোনে সাক্ষ্যদান করার পরামর্শ কাজে লাগানোর মাধ্যমে উত্তম ফল লাভ করা। জুডি নামে একজন বোন, টেলিফোনে সাক্ষ্যদান করার বিষয়ে যে-উৎসাহ প্রদান করা হয়েছে, সেটার প্রতি উপলব্ধি প্রকাশ করে যিহোবার সাক্ষিদের প্রধান শাখা অফিসে চিঠি লিখেছিলেন। তিনি জানান, তার মায়ের বয়স ৮৬ বছর এবং তার বিভিন্ন স্বাস্থ্যগত সমস্যা রয়েছে। কিন্তু, তা সত্ত্বেও তিনি নিয়মিতভাবে টেলিফোনে সাক্ষ্য দিয়ে থাকেন এবং টেলিফোনের মাধ্যমে ৯২ বছর বয়সি একজন মহিলার সঙ্গে বাইবেল অধ্যয়ন করে প্রচুর আনন্দ লাভ করেন!

আমাদের প্রকাশনায় সাক্ষ্যদান সম্বন্ধে যে-পরামর্শগুলো দেওয়া হয়, সেগুলো সত্যিই কার্যকরী। এগুলো কাজে লাগান! এগুলো আপনাকে প্রচার কাজের প্রতি আনন্দ ও উদ্যোগ বজায় রাখার জন্য সাহায্য করতে পারে।

যুক্তিযুক্ত লক্ষ্যস্থাপন করুন

আমরা মূলত কতগুলো প্রকাশনা বিতরণ করেছি, কতটা বাইবেল অধ্যয়ন পরিচালনা করি অথবা কত জনকে যিহোবার দাস হওয়ার জন্য সাহায্য করেছি, সেটা দিয়ে আমাদের প্রচার কাজের সফলতা পরিমাপ করা যায় না। যেমন, নিজের পরিবার ছাড়া, নোহ কত জন লোককে যিহোবার উপাসক হতে সাহায্য করেছিলেন? তা সত্ত্বেও, নিশ্চিতভাবেই তিনি একজন সফল প্রচারক ছিলেন। যে-বিষয়টা গুরুত্বপূর্ণ, সেটা হল আমরা বিশ্বস্তভাবে যিহোবার সেবা করি।—১ করি. ৪:২.

অনেক সাক্ষি দেখেছে, প্রচার কাজের প্রতি তাদের উদ্যমকে বৃদ্ধি করার জন্য তাদের যুক্তিযুক্ত লক্ষ্যস্থাপন করা প্রয়োজন। এইরকম কিছু লক্ষ্য কী হতে পারে? এই প্রবন্ধের সঙ্গে দেওয়া বাক্সে কিছু লক্ষ্য তুলে ধরা হয়েছে।

যিহোবার সাহায্যে আপনার সেবাকে পরিতৃপ্তিদায়ক ও ফলপ্রসূ করার বিভিন্ন উপায় খুঁজে বের করার চেষ্টা করুন। আপনি যখন আপনার লক্ষ্যগুলোতে পৌঁছাবেন, তখন আপনি কাজ সম্পন্ন করার আনন্দ লাভ করবেন এবং এটা জেনে পরিতৃপ্ত হবেন, সুসমাচার প্রচার করার জন্য আপনি আপনার যথাসাধ্য করছেন।

এটা ঠিক, সুসমাচার প্রচার করা কঠিন কাজ। কিন্তু, একজন উদ্যোগী প্রচারক হওয়ার জন্য আপনি অনেক কিছু করতে পারেন। আপনার প্রচারের সঙ্গীর সঙ্গে কাজ করার সময় পরস্পরকে উৎসাহ দিন, অধ্যয়নের উত্তম অভ্যাস গড়ে তোলার ও তা বজায় রাখার চেষ্টা করুন, বিশ্বস্ত দাসের দেওয়া পরামর্শ কাজে লাগান এবং যুক্তিযুক্ত লক্ষ্যস্থাপন করুন। সর্বোপরি মনে রাখবেন, ঈশ্বর আপনাকে তাঁর একজন সাক্ষি হিসেবে সুসমাচার ঘোষণা করার অতুলনীয় সুযোগ দিয়েছেন। (যিশা. ৪৩:১০) আপনি যদি প্রচার কাজের প্রতি আপনার উদ্যোগ বজায় রাখেন, তাহলে কত আনন্দই-না লাভ করবেন!